Main Menu

স্পষ্ট ভাষায় বলছি, কথা না শুনলে গুটিয়ে নিতে হবে: শিক্ষামন্ত্রী

kalerchitro 18.07...শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের হুঁশিয়ার করে দিয়ে বলেছেন, স্পষ্ট ভাষায় বলছি, কথা রাখবেন না, কথা শুনবেন না, ওয়াদা করা শর্ত পালনের চেষ্টাও করবেন না তাহলে থাকতে পারবেন না। গুটিয়ে নিতে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে চিনতে হবে। যদি শিক্ষক যুক্তি দেখান যে এতো শিক্ষার্থীকে চিনবো কী করে, তাহলে বলবো, যদি চিনতেই না পারেন তবে ভর্তি করালেন কেন, যতোটুকু সামর্থ রয়েছে ততটুকু করবেন। ৩০ জনকে চিনলে ৩০ জনই ভর্তি করান। কিন্তু আপনার ছাত্র যেন জঙ্গিবাদের মতো বিপথে না যায়।

রোববার রাজধানীর খামারবাড়ি কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনের সেমিনার কক্ষে আয়োজিত এক বৈঠকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মন্ত্রী। সম্প্রতি জঙ্গি কর্মকাণ্ডের সঙ্গে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জড়িত থাকার বিষয়টি সামনে আসার পর বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সঙ্গে এই বৈঠকের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ বিরোধী সামাজিক চেতনা গড়ে তুলতে হবে, সামাজিকভাবে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। যারা ঐক্যবদ্ধতার বিরোধী, অন্যায় কাজ, মানবতাবিরোধী ও জঙ্গিবাদের পক্ষে তাদের প্রতিরোধ করতে হবে। একঘরে করতে হবে। আইনি ব্যবস্থা নিতে হবে। জনে জনে যোগাযোগ গড়ে তুলবো। যেসব বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের কথা ও শর্ত শুনবেন না, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মানবেন না তাদের থাকার অধিকার নেই।

আগামী ২১ তারিখ মাদরাসা শিক্ষকদের নিয়ে একটি সম্মেলন করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

মন্ত্রী বলেন, এদেশে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সব মিলে ৩৮ লক্ষাধিক শিক্ষার্থী পড়াশুনা করছে। এই শিক্ষার্থীদের রয়েছে অতীত ঐতিহ্য। এই ঐতিহ্য কলঙ্কিত করতে দেয়া যাবে না। এদেশের কোনো শিক্ষার্থী জঙ্গিবাদে যাতে আর জড়াতে না পারে সেজন্য সব ধরনের ব্যবস্থা আমাদের নিতে হবে। এজন্য শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাক, মন্ত্রী পেশাজীবী সবাইকে সচেতন হতে হবে। মন্ত্রী প্রশ্ন রাখেন, পুলিশ জীবন দিয়ে জঙ্গিবাদি তৎপরতাকে রুখে দিচ্ছে। তাহলে আমরা কেন বসে থাকবো?

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া, সাবেক ছাত্রনেতা এনামুল হক শামীম, ঢাকা উত্তর মহানগর আওয়ামীলীগ নেতা সাদেক খান, স্কলাসটিকা স্কুল প্রধান ব্রি. জে. সাখাওয়াত হোসেন, মানারাত স্কুলের অধ্যক্ষ মেহেদি হাসান প্রামাণিক, নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) আতিকুল ইসলাম, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটির ভিসি আব্দুল মান্নান, ইউডার উপাচার্য প্রফেসর এমাজউদ্দিন, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় মালিক সমিতির সভাপতি শেখ কবির হোসেন।






Related News

Comments are Closed