Main Menu

বিএনপি ও জামাত শিবীরের ইন্দনে সোনারগাঁয়ে পঞ্চমীঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ে পরিচালনা কমিটির নির্বাচনকে ঘিরে নানা নাটকীয়তা

narayanganj mapরিপোর্টারঃ ফারুক হোসেন;

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁ উপজেলার পঞ্চমীঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির নির্বাচনে ঘিরে দুইটি প্যানেল এর সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে এমন নাটক সাজিয়ে অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গত বৃহস্পতিবার নির্বাচন স্থগিত চেয়ে আদালতে আবেদন করেন।এ সময় আদালত তা মঞ্জুর করেন।পরে রবিবার নিজের জীবনের নিরাপত্তা চেয়েও সোনারগাঁ থানায় লিখিত সাধারন ডায়েরী করেন তিনি।প্রধান শিক্ষক বিএনপি নেতা বলেও সুত্রে জানা গেছে।

জানা যায়, উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নে পঞ্চমীঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির নির্বাচন গত শনিবার অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।এই নির্বাচনে সাদিপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুর রশিদ মোল্লা ও ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি কামরুজ্জামান মাসুম তাদের দুটি প্যানেল নির্বাচনী তফসিল ঘোষনা করেন। নির্বাচনের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এসএম আবু তালেব নির্বাচনি আচারণ বিধি মেনে প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম, সহকারী প্রধান শিক্ষক ফজলুল হক ও সহকারী শিক্ষক আব্দুল বাতেনের ভোটাধিকার বাতিল করেন। তাদের ভোটাধিকার বাতিল করায় বিএনপির নেতা কামরুজ্জামান মাসুমের যোগসাজেশ গত বৃহস্পতিবার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম নির্বাচন স্থগিত চেয়ে আদালতে আবেদন করেন। আবেদনের পরিপেক্ষিতে নারায়ণগঞ্জের সহকারী দায়রা জজ নির্বাচনের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ দেন। এ প্রধান শিক্ষক বিএনপির সক্রিয় কর্মী বলে জানিয়েছে এই বিদ্যালয়ের অভিভাবক মহল।

বিএনপির কর্মী ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম জানান, আমাদের ভোটাধিকার বাতিল করায় বাধ্য হয়ে আদালতের শরনাপন্ন হয়েছি। এতে আদালত নির্বাচনে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ।এতে একটি পক্ষ আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দেয়। বাধ্য হয়ে জীবনের নিরাপত্তার জন্য থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছি।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঞ্জুর কাদের জানান, বিদ্যালয় পরিচালনার নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ও বিএনপির দুইটি প্যানের রয়েছে।আদালত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার জারি করেছে।প্রধান শিক্ষকের লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।পুলিশ তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।






Related News

Comments are Closed