Main Menu

হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামী’র জমজমাট মাদক ব্যবসা

madokএনএনএস২৪, বন্দর (১৭’জুলাই ১৬ইং রোজ রোববার) ঃ বন্দর উপজেলার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামী আলমগীর ওরফে পোটল থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে মাদক ব্যবসা চালাচ্ছে বলে গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। সে এলাকায় একটি সংঘবদ্ধ সিন্ডিকেট গড়ে ছড়িয়ে দিচ্ছে মরণ নেশা মাদক। প্রতিবাদ করলেই এই সিন্ডিকেটের হামলার শিকার হতে হয় বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। তাই এলাকার যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল ছোবল থেকে রক্ষা করতে চরম হতাশাগ্রস্ত স্থানীয় এলাকাবাসী জেলা পুলিশ সুপার ড. খন্দকার মহিদ উদ্দিনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বন্দর থানার ধামগড় ইউনিয়নের চাপাতলী এলাকার হোসেনের ছেলে চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও মাদক স¤্রাট আলমগীর ওরফে পোটল একটি হত্যা মামলায় ১২ বছর জেল খেটে গত এক বছর আগে জামিনে বেরিয়ে এসে ফের বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। সে একটি সিন্ডিকেট করে ধামগড় পুলিশ ফাঁরি সংলগ্ন এলাকায় সরকারী জায়গা দখল করে ঘর নির্মান করে। এই ঘরকে আস্তানা হিসেবে ব্যবহার করে পুলিশের নাকের ডগায় অবাধে চালিয়ে যাচ্ছে মরণ নেশা মাদক ব্যবসা। এই আস্তানায় বসে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে আশপাশের এলাকায় সরবরাহ করছে মরণ নেশা মাদক ফেন্সিডিল ও ইয়াবা। আর পুলিশ রহস্য-জনক কারনে নিরব ভুমিকা পালন করছে। প্রতিদিন সকাল থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত তার আস্তানায় চলে মাদক সেবনের আড্ডা। বিভিন্ন এলাকার চিহ্নিত অপরাধী ও মাদকসেবীরা ভীড় জমায় এ আস্তানায়। তাদের এহেন কর্মকান্ডে স্থানীয় যুব সমাজ হয়ে পরছে বিপথগামী। পুলিশের নাকের ডগায় এসব কর্মকান্ড করার কারনে ভয়ে তাদের বিরুদ্ধে স্থানীয় এলাকাবাসী প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছেনা। বন্দর থানা পুলিশের তাকে মাদকসহ গ্রেফতার করলেও জামিনে বেরিয়ে এসে বীরদর্পে আবারো শুরু করে মাদক ব্যবসা। পোটলের ভয়ানক মাদক ব্যবসা বন্ধে এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছে।






Related News

Comments are Closed