Main Menu

সোনারগায়ে পুলিশের সহয়তায় পতিপক্ষের বসতঘরে হামলা ঃ মহিলাসহ আহত ৬

সোনারগায়ে পুলিশের সহয়তায় পতিপক্ষের বসতঘরে হামলা, মহিলাসহ আহত ৬। আহতদের মধ্যে ২’জনের অবস্থা আশংকা জনক। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ৩’টায় থানার বারদী ইউনিয়নের মসলন্দিপুর এলাকার সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মান্দারপাড়া এলাকার হাবু মেম্বারের বাড়িতে এ হামলা চালায়।
এলাকাবাসী জানায়, পূর্ব শত্র“তার জের ধরে সোনারগা থানার এস আই রেজাউল করিমের সহয়তায় থানার বারদী ইউনিয়নের মসলন্দিপুর গ্রামের সেলিম, সানাউল¬াহ সানু, বিল্লাল হোসেন, কামাল, মাসুদ, নাছু, কাসেম, মোখলেছ, হুমায়ন, রফিকসহ ৫০/৬০জন সন্ত্রসী দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মান্দারপাড়া এলাকার হাবু মেম্বারের বাড়িতে হামলা চালায়। পুলিশের উপস্থিতিতে সন্ত্রাসীরা হামলা করায় এলাকাবাসী তাজ্যব বনে যায়। হামলাকারীদের হামলায় ৪’জন মহিলাসহ ৬’জন আহত হয়। আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। আহতদের মধ্যে আব্দুল আলীর ছেলে বিল্লাল ও মনুরুদ্দিনের ছেলে শুক্কুর আলীর অবস্থা আশংকা জনক। আহত বিল্লালকে পুলিশ আটক রেখে চিকিৎসা কাজে বাধাঁ দেয়। উল্লেখ্য গত ১৪’জানুয়ারী ১৬ইং বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯’টায় সোনারগাঁয়ের শান্তির বাজার এলাকায় জৈনক নিপুর সাথে সন্ত্রাসী সানাউল¬াহ সানুর পোল্টি ব্যাবসা নিয়ে কথা কাটা-কাটির এক পর্যায় সন্ত্রাসী সানু বাহিনী নিপুকে বেদম মারদর করে। নিপুর আত্বিয়-স্বজন খবর পেয়ে সন্ত্রানী সানু বাহিনীকে দাওয়া দিলে তারা পালিয়ে যায়। সন্ত্রসী সানু টাকার জোরে আড়াইহাজার ও সোনারগাঁ থানায় নিপুসহ অনেককে আসামী করে দু’টি মামলা দায়ের করে। আসামী হওয়াতে মান্দারপাড়া গ্রাম পুরুষ শুন্য থাকায় গত ২৭’জানুয়ারী ১৬ইং বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২’টায় মসলন্দপুর গ্রামের সানাউল¬া সানু, সেলিম হোসেন দিপু, মান্নান মেম্বার, জামান, সানু, মাসুদ, বিল¬াল হোসেন, কামাল, হুমায়ন, হোসেন ও কামুসহ ৩০/৩৫ জন সন্ত্রাসীরা আলী আকবর মিয়া, হাজী রমু মিয়া ও শাহাবুদ্দিন মিয়ার ৩’টি বসত বাড়ীতে হামলা, লুটপাট চালিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয়, আগুনে পুড়ে, হামলা ও লুটপাটে প্রায় সাড়ে ২০’লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। এ সময় বাড়িতে থাকা মহিলারা আগুন নিভাতে গেলে ও হামলা ও লুটপাটকারীদের বাধাদিতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের হাতে ফাতেমা খাতুন, সকিনা, আসমা ও বেগম নামের ৪’জন মহিলা আহত হয়। আহতদের ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসা করা হয়। সোনারগাঁ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে, এ ঘটনাসহ গত কাল মঙ্গলবারের ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। সন্ত্রাসী সানাউল-াহ সানু ও সেলিম বিএনপি’র রাজনিতির সাথে জরিত থাকায় তাদের রয়েছে বিশাল একটি বাহীনি। এ বাহীনি মহাসড়কে গাড়ীতে আগুন দেয়া থেকে শুরুকরে সকল অপকর্ম করে থাকে। এদের বিরুদ্ধে জেলার বিভিন্ন থানায় বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। উল্লেখিত সন্ত্রাসীদের ও সন্ত্রাসীদের মদদদাতা এস.আই রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া জরুরী বলে মনে করেন এলাকার সচেতন জনগন। এ ব্যপারে সন্ত্রাসীদের সহয়তাকারী এস.আই. রেজাউল করিম মোবাইলে জানায়, আমি কাউকে মারধর করতে দেখিনি। তবে বিল্লাল নামে একজনকে আহত অবস্থায় বাদীরা আমার কাছে নিয়ে আসলে আমি চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছি। আহত বিল্লালকে থানায় নিয়ে এসে এজাহার নামীয় আসামী না হওয়ায় ছেড়ে দিয়েছি।






Related News

Comments are Closed