Main Menu

রূপগঞ্জে গৃহবধুকে গলাটিপে হত্যা

rupgonj pho 2 dt 28.01.2016গোলাম মোস্তফা তুহিন ঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বাপের বাড়ি থেকে স্বামীর দাবিকৃত ঋণের টাকা এনে দিতে না পারায় পাষন্ড স্বামী হাসনা হেনা (৩৫) নামে এক গৃহবধুকে গলাটিপে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার তারাব পৌরসভার দক্ষিণ মাসাবো এলাকায় ঘটে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা। ঘটনার পর থেকে ঘাতক স্বামী অনোয়ার হোসেন পলাতক রয়েছে।
নিহত গৃহবধু হাসনা হেনা জেলার সোনারগাঁও উপজেলার পেরাব এলাকার মৃত আব্দুল হামিদ মোল্লার মেয়ে। গত ৯ বছর আগে নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলার সন্দিপ এলাকার আতাউর রহমানের ছেলে আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে হাসনা হেনার ইসলামী সরিয়াহ মোতাবেক বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকে তারা দক্ষিণ মাসাবো এলাকার মতিন মোল্লার বাড়িতে বসবাস করে আসছেন। এছাড়া আনোয়ার হোসেন পেশায় একজন অটোরিকশা চালক।
প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল ইসলাম জানান, আইএসডি নামে একটি এনজিও থেকে ৫০ হাজার টাকা ঋণ গ্রহন করেন আনোয়ার হোসেন। ওই এনজিও’র ঋণ পরিশোধ করতে না পেরে স্ত্রী হাসনা হেনাকে তার বাপের বাড়ি থেকে টাকা এনে দিতে চাপ প্রয়োগ করে আসছে। স্বামীর দাবিকৃত ঋণের টাকা এনে দিতে না পারায় বেশ কয়েকদিন ধরে আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে হাসনা হেনার ঝগড়া-ঝাটি চলে আসছিলো। শুধু তাই নয়, হাসনা হেনাকে বিভিন্ন ভাবে শারিরিক নির্যাতন চালানো হতো।
এ নিয়ে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে হাসনা হেনার সঙ্গে তার স্বামী আনোয়ার হোসেনের বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে এক মাত্র মেয়ে নাহিদা আক্তারের সামনেই স্বামী আনোয়ার হোসেন স্ত্রী হাসনা হেনাকে শারিরিক নির্যাতন চালায়। এক পর্যায়ে হাসনা হেনাকে গলাটিপে হত্যা করা হয়। পরে স্থানীয় লোকজন থানা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে। এদিকে পলাতক ঘাতক স্বামী আনোয়ার হোসেনকে আটকের চেষ্টা চলছে। মৃতদেহটি নারায়ণগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।






Related News

Comments are Closed