Main Menu

ইউপি নির্বাচনে নারী প্রার্থীদের জন্য নতুন প্রতীক

ইউপি নির্বাচনে নারী প্রার্থীদের জন্য নতুন প্রতীক
 স্থানীয় সরকারের সবচেয়ে বড় প্রতিষ্ঠান ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনের প্রচারণায় অংশ নিতে পারবেন না মন্ত্রী-এমপিরা। একইভাবে রাজনৈতিক দলগুলো চেয়ারম্যান পদে একাধিক ব্যক্তি মনোনয়ন দিতে পারবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। স্থানীয় সরকার ইউনিয়ন পরিষদ (নির্বাচন আচরণ) ও নির্বাচন বিধিমালা-২০১৬ তে এসব বিধান রাখা হয়েছে। তবে চেয়ারম্যান পদে সরাসরি স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারবেন যে কেউ। এ ক্ষেত্রে কোনো ভোটারের স্বাক্ষর লাগবে না
মঙ্গলবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কমিশন সভায় খসড়া বিধিমালার অনুমোদন দেয়া হয়। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইসি সচিবালয়ের সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম ইত্তেফাককে বলেন, আগামী রবিবারের মধ্যে বিধিমালা দু’টি ভেটিংয়ের জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। বিধিতে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের প্রচারণার বাইরে রাখার বিষয়ে দু’জন নির্বাচন কমিশনার প্রস্তাব করলেও অন্যারা তাতে আপত্তি জানান। পৌরসভার মতো ইউপিতেও উপজেলার চেয়ারম্যানদের প্রচারণায় অংশ নেয়ার পক্ষে বেশি মত এসেছে। ফলে সরকারি সুবিধা ছাড়া উপজেলার চেয়ারম্যানরা প্রচারণায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন। এমপিদের প্রচারণার বাইরে রাখার হলো। আগামী মার্চের শেষ সপ্তাহে ছয়শ’ ইউপির নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে কমিশন। আগামী মাসের মাঝামাঝি তফসিল ঘোষণার পরিকল্পনা করা হয়েছে। ধাপে ধাপে এবারে ইউপি নির্বাচন আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি।
এদিকে, প্রথমবার দলীয়ভিত্তিতে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদের নির্বাচনের জন্য পৌরসভার নির্বাচন আলোকে আচরণ বিধিমালা করেছে কমিশন। খসড়া বিধিমালার ২২ ধারা অনুযায়ী অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হিসাবে প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার, মন্ত্রী, চিফ হুইপ, ডেপুটি স্পিকার, বিরোধী দলীয় নেতা, সংসদ উপনেতা, প্রতিমন্ত্রী, হুইপ, উপমন্ত্রী বা তাদের সমমর্যাদার কোনো ব্যক্তি, সংসদ সদস্য এবং সিটি করপোরেশনের মেয়রা নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে পারবেন না। একইভাবে কোনো সরকারি কর্মকর্তা বা কর্মচারী নির্বাচনপূর্ব সময়ে নির্বাচনী এলাকায় প্রচারণায় বা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। কেবল ভোট প্রদান করার জন্য ভোটকেন্দ্রে যেতে পারবেন।
একাধিক ব্যক্তিকে মনোনয়ন দেয়া যাবে না
ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন বিধিমালা-২০১৬ অনুযায়ী, নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে একই ইউনিয়ন পরিষদে একাধিক ব্যক্তিকে মনোনয়ন দেয়া হলে ওই দলের সকল প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে যাবে।
সরাসরি স্বতন্ত্র প্রার্থী
কোনো ভোটারের স্বাক্ষর লাগবে না চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জন্য।
শুধু চেয়ারম্যান প্রার্থীর মৃত্যু হলে নির্বাচন বন্ধ

শুধু চেয়ারম্যান প্রার্থীর মৃত্যু হলে নির্বাচন বন্ধের বিধান রাখা হয়েছে।






Related News

Comments are Closed