Main Menu

কাচঁপুর সেনপাড়ায় সুমনের মাদক ব্যবসা রমরমা।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সোনারগাঁ থানাদীন, কাচঁপুর সেনপাড়া এলাকার নূরুল হকের ছেলে সুমনের মাদক ব্যবসা রমরমা। বিশ্বাস্ত সূত্রে জানাজায় মাদক ব্যবসায়ী সুমনের রয়েছে একাধিক মাদক বিক্রির সিন্ডেকেট, আর সবাই সুমনের ভগ্নি পোতি বাচ্চু, মনির, পিতা হাশেম, মোকলেছ, পিতা আব্দুল আজিজ, এবং রহিম বাদশা। মাদক ব্যবসায়ী সবাই কাচঁপুর সেনপাড়া এলাকার বাসিন্দা, এদের সবাইকে সুমনের ভগ্নিপত বাচ্চু নিয়ন্ত্রন করে থাকে। সুমন তার ভগ্নিপতি বাচ্চু কে দিয়ে মাদকের বড় চালান সোনারগাঁ এলাকার বিভিন্ন স্থানে পাইকারী হিসাবে মাদক বিক্রি করে থাকে জানাযায়। স্বশরী গিয়ে সেনপাড়া এলাকার এক ব্যক্তির সাথে আলাপ কালে নাম প্রকাশ না করার স্বর্থে তিনি জানান, সুমন একজন মাদকের ডিলার, সুমন ইয়াবা, পিন্সিডিল, হিরোইন ও বিভিন্ন বয়সের নারী পতিতা দিয়ে নারী দেহ ব্যবসা করে । সেনপাড়া এলাকার কুদ্দুস নামে এক ব্যক্তি বলেন, আরে ভাই সরিষার ভিতরে ভূত, জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রসাশন চাইলে দেশের সব অন্যায় শেষ করে দিতে পারে যে কোন মুহর্তে, যে খানে আইন সৃখলা বাহীনি অপরাধ দমন করার কথা সে খানে মাঝে মধ্যে দেখা যায়, সাদা পোষাকে আইন সৃখলা বাহীনি সুমনের সাথে কথা বলতে, গ্রেফতার না করে তারা তাদের হিসাব নিকাশ শেষ করে চলে যায়। প্রসাশনের বিভিন্ন বাহীনির লোকজন, তিনি আর জানান নারায়ণগঞ্জ মাদক দব্য নিয়ন্ত্র অধিদপ্তর আবগারীর সাইদ নামের কালো করে একটি লোক মাদক ব্যবসায়ী সুমনের কাছ থেকে মাসহারা নিয়ে যেতে দেখা যায় বলে তিনি যানান। ঐ ব্যাক্তি আর বলেন এই ভাবে দেশ চলতে পারে না, আমাদের যুবসমাজ ধ্বংশ হয়ে যাচ্ছে। এই ভাবে দেশ চললে প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল দেশ গড়ার কারিগর হবে কারা। তাই সচেতন মহলের দাবি এই দেশের যুবসমাজ কে বাচাতে সেনপাড়া মাদক ব্যবসায়ী সুমন ও লিটনের স্ত্রী আসমাদেরমত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনে উর্ধ্বতন কর্তিপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছে সচেতন মহল।






Related News

Comments are Closed