Main Menu

প্রতীক পেলেন ছেংগারচর পৌরসভার ৪৪ প্রার্থী

2সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) বিকেলে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভা নির্বাচনে আ’লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আলহাজ্ব মোঃ রফিকুল আলম জর্জকে দলীয় প্রতীক নৌকা ও বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী সারোয়ারুল আবেদিন খোকনকে দলীয় প্রতীক ধানের শীর্ষ প্রতীক বরাদ্ধ দিয়েছে উপজেলা রিটার্নিং অফিসার ও ইউএনও মোহাম্মদ মফিজুল ইসলাম।

এছাড়া উন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীরা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা কাজী হেকমত আলীর কাছ থেকে দলীয় প্রতীক গ্রহণ করেন। কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীদের লটারির মাধ্যমে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়। প্রার্থীরা প্রতীক বুঝে পেয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রচার- প্রচারণায় নেমে পড়েছেন।

মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, ছেংংগারচর পৌরসভার মেয়র পদে আ’লীগের ১ জন এবং বিএনপির ১ জন প্রার্থী রয়েছে। আর ৯টি ওয়ার্ডে ৩৪ জন সাধারণ কাউন্সিরর, ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্বিতা করছেন।

মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর পৌরসভা নির্বাচনে নারী কাউন্সিলর পদে ১০ জন ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৪ জন প্রার্থী গতকাল সোমবার প্রতিক পাওয়ার সাথে সাথে ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন। তাদের মধ্যে সাধারণ কাইন্সলর পদে ১নং ওয়ার্ডে ২ জন, ২নং ওয়ার্ডে ২ জন, ৩নং ওয়ার্ডে ৫জন, ৪নং ওয়ার্ডে ৫ জন, ৫নং ওয়ার্ডে ৪জন, ৬নং ওয়ার্ডে ৩জন, ৭নং ওয়ার্ডে ৭জন, ৮নং ওয়ার্ডে ৪জন ও ৯নং ওয়ার্ডে ২ জন প্রার্থী মোট ৩৪) জন কাউন্সিরর প্রার্থীরা ভোট লড়াইয়ে নেমে পড়েছেন। সংরক্ষিত মহিলা আসনের ১নং ওয়ার্ডে ৪জন, ২নং ওয়ার্ডে ৩জন ও ৩নং ওয়ার্ডে ৩জন মহিলা কাউন্সিরর প্রার্থী মোট ১০ প্রার্থী মনোয়ন পত্র দাখিল করেছিলেন

অপরদিকে মেয়র পদে আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আলহাজ্ব মোঃ রফিকুল আলম জর্জ বিনা প্রতিদ্বন্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে থাকলেও রোববার হাইকোট থেকে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী সারোয়ারুল আবেদিন খোকন প্রার্থিতা বহাল থাকায় হাইকোর্টের নির্দেশ মোতাবেক অবশেষে সোমবার বিকেলে বিএনপির প্রার্থীর মনোয়নপত্র গ্রহণ করে তাকে নির্বাচনী পতীক ধানের শীষ প্রতীক দেওয়ায় এ পৌরসভায় নতুন করে শুরু হয়েছে হিসাব-নিকাশ।

বর্তমান মেয়র ও আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী রফিকুল আলম জজের দাবি তিনি বিনাপ্রতিদ্বন্বিতায় নির্বাচিত। অপরদিকে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী সারোয়ারুল আবেদিন খোকন দাবি করছেন, হাইকোর্ট থেকে তার প্রার্থিতা বহাল রয়েছে। বিনাপ্রতিদ্বন্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার সুযোহ নেই।

এদিকে বিএনপির প্রার্থী সারোয়ারুল আবেদিন খোকনের প্রার্থিতা বহালের রায়ের বিরুদ্ধে আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র রফিকুল আলম জর্জ সুপ্রিমকোর্টে আপিল করার কথা শুনা গেছে। ফলে এ পৌরসভায় মেয়র পদে নির্বাচন আসলে কী ভাগ্য নির্ভর করছে তা নিয়ে ভোটারদের মনে নানান জল্পনা-কল্পনা বিরাজ করছে। বিষয়টি আইনের মাধ্যমে ফয়সালা নাকি বিনাপ্রতিদ্বন্বিতায় তা নিয়ে এখন চলছে জল্পনা-কল্পনা।

মেয়র পদে আ’লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আলহাজ্ব মোঃ রফিকুল আলম জর্জ প্রতীক (নৌকা) ও বিএনপির মনোনীত প্রার্থী সারোয়ারুল আবেদিন খোকনকে প্রতীক (ধানের শীষ)। এছাড়া ওয়ার্র্ড ভিত্তিক পতীকসহ প্রার্থীদের তালিকা : ১নং ওয়ার্ড ঃ বর্তমান প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব মোঃ রুহুল আমিন মোল্লা প্রতীক (উটপাখি), আবু জাফর সরকার ডালিম প্রতীক (ডালিম)। ২নং ওয়ার্ডঃ মোঃ আঃ সালাম খান প্রতীক (উটপাখি) ও মোঃ খোকন প্রধান প্রতীক (পাঞ্জাবী)। ৩নং ওয়ার্ডঃ মোঃ মনির হোসেন ভুইয়া প্রতীক (পানির বোতল), বর্তমান কাউন্সিলর মোঃ জহিরুল হক প্রতীক (ব্লাকবোর্ড), মোঃ মজিবুর রহমান মিয়াজী প্রতীক (পাঞ্জাবী),মজিবুর রহমান সরকার প্রতীক (টেবিলল্যাম্প), মোঃ শহীদ উল্যাহ সরকার প্রতীক (উটপাখি)। ৪নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিরর মোঃ শাহাদাৎ হোসেন খোকন ঢালী প্রতীক (উটপাখি), মোঃ নাজমুল হাসান খান প্রতীক (পাঞ্জাবী), মোঃ মাহাবুব আলম ঢালী প্রতীক (পানির বোতল), মোঃ ছানা উল্যাহ সরকার প্রতীক (টেবিলল্যাম্প), মোঃ আহসান উল্যাহ দর্জি প্রতীক (ডালিম)। ৫নং ওয়ার্ডঃ মোঃ আঃ মান্নান বেপারী প্রতীক (পাঞ্জাবী), মোঃ আল- আমিন মিয়াজী প্রতীক (উটপাখি), মোঃ এনায়েত উল্যাহ প্রতীক (পানির বোতল),মোঃ তাজের আহম্মেদ টিপু প্রতীক (ডালিম)। ৬নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিলর মোঃ আল-আমিন সরকার প্রতীক (ডালিম), মোঃ ইদ্রস আলী (উটপাখি), সাবেক কমিশনার মো বিল্লøাল হোসেন সরকার প্রতীক (পাঞ্জাবী)। ৭নং ওয়ার্ডঃ মোঃ সোহেল রানা প্রতীক (টেবিলল্যাম্প), বর্তমান কাউন্সিলর আঃ মতিন মেম্বার প্রতীক (উটপাখি), মোঃ ফেরদাউস প্রধান প্রতীক (পানির বোতল), মোঃ শফিকুল ইসলাম সেকুল প্রতীক (ডালিম),মোঃ রুহুল কুদ্দুস প্রতীক (পাঞ্জাবী), মোঃ ইসমাইল হোসেন প্রতীক (ব্লাকবোর্ড), মোঃ আলমগীর মিায়াজী প্রতীক (গাজর)। ৮নং ওয়ার্ডঃ বর্তমান কাউন্সিরর মোঃ বাবুল প্রধান প্রতীক (উটপাখি), মোঃ জামান সরকার প্রতীক (পাঞ্জাবী), মোঃ বোরহান উদ্দিন প্রধান প্রতীক (ডালিম), মোঃ শাহজাহান প্রতীক (ব্লাকবোর্ড)। ৯নং ওয়ার্ডঃ মোঃ আহসান হাবিব প্রতীক (পাঞ্জাবী), মোঃ গিয়াস উদ্দিন প্রতীক (উটপাখি)। এছাড়া সংরক্ষিত মহিলা আসনে সংরক্ষিত ওয়ার্ড-১ (১,২,৩) আসনে বর্তমান মহিলা কাউন্সিলর সেলিনা বেগম প্রতীক (আংগুর ফল), জুলেখা বেগম প্রতীক (হারমোনিয়াম), মনোয়রারা বেগম প্রতীক (কাঁচি), হালিমা বেগম প্রতিক (মৌমাছি)। সংরক্ষি ওয়ার্ড ২নং (৪,৫,৬) আসনে বর্তমান মহিলা কাউন্সিলর নাছিমা বেগম প্রতীক (হারমোনিয়াম), জাকিয়া জান্নাত প্রতীক (কাঁচি), মিন্নাতুন নেছা মিলি প্রতীক (আংগুর ফল)। সংরক্ষিত ওয়ার্ড ৩ (৭,৮,৯) আসনে শাহিনা আক্তার প্রতীক (মৌমাছি), মিসেস শিউলী বেগম প্রতীক (কাঁচি), তাছলিমা আক্তার প্রতীক (আংগুর ফল)।

এদিকে সোমবার কাউন্সিলর প্রার্থীরা প্রতীক পাওয়ার পর থেকেই তারা তাদের প্রতীক নিয়ে প্রচারণায় নির্বাচনী মাঠে নেমে পড়েছেন। প্রতীকে ভোট চেয়ে শোডাউন ও মিছিল করেছেন। শুরু হয়ে গেছে নির্বাচনী আমেজ। ভোটারদের মাঝে এখন উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।






Related News

Comments are Closed