Main Menu

আবাসিক হোটেলের অন্তরালে নারী দেহ ও মাদক ব্যবসা রমরমা

5কুমিল্লা প্রতিনিধি :
কুমিল্লা সদর থানাধীন শাশন গাছা এলাকার বাদশা মিয়ার বাজারে সোনালী ব্যাংক বিল্ডিং এর ৩য় তলায় হোটেল নিশিতা আবাসিক এ চলছে নারীদেহ ও মাদক ব্যবসা রমরমাভাবে চালিয়ে আসছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়। বর্তমান হোটেল নিশিতার চার পার্টনার হোটেলটি পরিচালনা করিয়া আসছে বলে খবর রয়েছে। তাদের গ্রামের বাড়ী কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায়। মনিরের বাড়ি কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম থানার ধনুসারা, কালাম ওরফে (মদতি কালাম) এর বাড়ি দেবিদ্বার থানার হাইশে পাড়া। রহিম কুমিল্লা সদর থানার শাশন গাছা, সেলিম দেবিদ্বার থানার জাফরগঞ্জ এলাকায়। তারা সবাই মিলে হোটেল নিশিতায় প্রতিতা মাদক জুয়া ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে দে-দারছে। এদের মধ্যে মনির ও রহিম কুমিল্লা সদর শাশন গাছা রেললাইন এলাকার হোটেল আবাসিক ঝিনুক, ঝলকে প্রতিতার দালালী করায় তাদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু মামলা রয়েছে বলে গোপন সূত্রে জানা যায় এবং কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানা এলাকায় হোটেল আবাসিক সম্রাটে প্রতিতার ব্যবসা করায় হোটেল সম্রাটের মালিক কালাম ওরফে (মদতি কালাম) তার নামেও রয়েছে নারী শিশু একাধিক মামলা। এরা সবাই পূর্বের স্থান ছেরে চারজন এক হয়ে কুমিল্লার শাশন গাছা এলাকার বাদশা মিয়ার বাজারে সরকারী প্রতিষ্ঠান সোনালী ব্যাংক বিল্ডিং এর ৩য় তলায় চালাচ্ছে তাদের অপকর্ম। এব্যাপারে এলাকার সচেতন মহল জানায় এদের কারণে মাদকাসক্ত হয়ে পড়েছে স্কুল পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রী এবং পাশা-পাশি দৈহ্যিক মিলনে লিপ্ত হচ্ছে তারা। সচেতন মহলের ব্যক্তিরা আরোও জানায় এখানে একটি সরকারী ব্যাংক রয়েছে। নিশিতা আবাসিক হোটেলটিতে সন্ত্রাস,চাঁদাবাজ ও মাদকাসক্ত থেকে শুরু করে সব ধরণের লোকদের আনাগোনা রয়েছে। যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরণের দূর্ঘটনা। প্রশাসন যেন জেগে ঘুমাচ্ছে তাই এদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণে উর্দ্ধোতন মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করছে সচেতন মহল।






Related News

Comments are Closed