Main Menu

বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নারী রাজনীতিকরা যুক্তরাজ্যে তাদের অবস্থান সুদৃঢ় করলেন

tulip siddiqueঅগ্রসর ডেস্ক :
লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনের মিনিস্টার (প্রেস) নাদিম কাদের গতরাতে ফোনে বাসসকে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাগ্নি টিউলিপ সিদ্দিক বৃটেনের লেবার পার্টির ছায়া মন্ত্রিসভায় সংস্কৃতি, মিডিয়া ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মনোনীত হয়েছেন।’
নবনির্বাচিত লেবার পার্টির দলীয় নেতা জেরেমি করবিন বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত বৃটিশ এমটি টিউলিপকে তার ছায়া মন্ত্রিসভায় জুনিয়র সদস্য হিসেবে স্থান দিয়েছেন। এখানে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, এর মাধ্যমে বৃটিশ রাজনীতিতে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত নারী রাজনীতিকদের অবস্থান আরো দৃঢ় হয়েছে।
এ বছরের ৭ মে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে শেখ রেহানার মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিক লেবার পার্টির টিকেটে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কিলবার্ন আসন থেকে বৃটিশ পার্লামেন্টে এমপি নির্বাচিত হন। লন্ডনের সবচেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ১০ আসনের একটি এটি।
তিনি তার প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির সায়মন মার্কাসের ২২ হাজার ৮৩৯ ভোটের বিপরীতে ২৩ হাজার ৯৭৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।
টিউলিপ ১৯৮২ সালে লন্ডনের মিচামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ইংরেজি সাহিত্য এবং রাজনীতি, নীতি ও সরকার- এ দুটি বিষয়ে লন্ডনস্থ কিংস কলেজ থেকে পৃথকভাবে মাস্টার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করেন।
উইকিপিডিয়া অনুযায়ী তিনি বিগেস্টস পার্কের সাবেক কাউন্সিলর এবং ক্যামডেন কাউন্সিলের সংস্কৃতি ও কম্যুনিটির কেবিনেট মেম্বার।
টিউলিপ ২০১০ সালে ক্যামডেন কাউন্সিলে প্রথম বাঙালি নারী কাউন্সিলর নির্বাচিত হন এবং এ বছরই প্রথম পার্লামেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।






Related News

Comments are Closed