Main Menu

তৃণমূল বিএনপির ব্যর্থ নেতাদের অপসারণ দাবি

news-17ষ্টাফ রিপোর্টার- সরকার বিরোধী আন্দোলনে নিস্ক্রিয় ছিলেন এমন নেতাদের পদ থেকে সরিয়ে দেয়ার উদ্যোগ নেয়ার পর বিএনপির তৃণমূল পর্যায়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। সম্প্রতি দলের কেন্দ্রীয় কমিটির তরফ থেকে পাঠানো এক চিঠিতে বলা হয়েছে, যারা দলের বিভিন্ন পদে থেকেও সরকার বিরোধী আন্দোলনে নিস্ক্রিয় ছিলেন, তাদের সরে যেতে হবে। বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোহাম্মদ শাহজাহানের নামে পাঠানো এই চিঠি পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন বিভিন্ন জেলা কমিটির কয়েকজন নেতা। তবে তাদের কেউ কেউ এই চিঠি পাওয়ার পর উল্টো ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, শুধু মাঠ পর্যায়ের ব্যর্থ নেতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলেই হবে না, যারা কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে থেকে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে।

যুগ্ম মহাসচিব তৃণমূল পর্যায়ের নেতাদের কাছে যে চিঠি পাঠিয়েছেন, তাতে বলা হয়েছে, “দল, অঙ্গ সংগঠন এবং সহযোগী সংগঠনের অনেক নেতা কর্মীর দায়িত্ব পালনে অবহেলা, অক্ষমতা, অযোগ্য, ব্যর্থতা লক্ষ্য করা গেছে। ভয়-ভীতি, ব্যক্তিস্বার্থ ও আপোষকামিতা বিএনপির আন্দোলন-সংগ্রামকে দুর্বল ও ক্ষতিগ্রস্থ করেছে। এসব কর্মকান্ড ও তৎপরতাকে সাংগঠনিকভাবে গুরুতর অপরাধ বলে গণ্য করা উচিত।” এই চিঠিতে আত্মসমালোচনা করে বলা হয়েছে, এ ধরণের নেতা-কর্মীদের কারণেই বিপুল জনসমর্থন থাকা সত্ত্বেও আন্দোলন তীব্র করা যায়নি। চিঠিতে আগামী ৩০শে সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব থানা, উপজেলা ও পৌর এবং জেলা কমিটি পুনর্গঠন করতে বলা হয়েছে।

মাগুরা জেলা বিএনপির সভাপতি কবির মুরাদ এই চিঠি পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, তারা এই চিঠি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন। তবে তিনি বলেন, যে সময়সীমার মধ্যে কমিটি পুনর্গঠন করতে বলা হয়েছে বাস্তব পরিস্থিতির কারণে তা সম্ভব নাও হতে পারে। কারণ মামলা থাকার কারণে অনেক নেতা কর্মীকে পালিয়ে বেড়াতে হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, “এটা পরিস্কার যে শুধু মাঠ পর্যায়ে নয়, ঢাকাতেও প্রত্যাশিত আন্দোলন হয়নি। ঢাকায় আন্দোলন সফল হলে, তার সুফল আমরাও পেতাম।”

নাটোর জেলা বিএনপির সভাপতি এবং সাবেক মন্ত্রী রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু বলেন, সরকার বিরোধী আন্দোলনের সময় কেন্দ্রীয় নেতৃত্বে আসীন যে নেতারা ব্যর্থ হয়েছেন তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে। তিনি বলেন, “আমি চাইবো মাঠ পর্যায়ে যারা ব্যর্থ হয়েছে, শুধু তাদের বিষয়ে নয়, কেন্দ্রে যারা ব্যর্থ হয়েছেন, তাদের বিষয়েও একই পদক্ষেপ নেয়া হোক।” তৃণমূল নেতাদের এই ক্ষোভের ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে বিএনপির কেন্দ্রীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, এই নির্দেশনা সবার জন্যই সমানভাবে কার্যকর হবে।






Related News

Comments are Closed